Sunday , February 28 2021

চিন্তা কইরেন না, যদি কেউ চান্স পায়, সেইডেই হবে আপনের ছেলে: মাশরাফি

যদি কেউ চান্স পায়, সেইডেই হবে আপনের ছেলে-বিকেএসপির ফুটবলার বাছাই চলছে পুরোদমে। বাছাই কাজে নিয়োজিত দলটার দম ফেলবার ফুসরত নেই। জহুরি চোখ দিয়ে খুঁজে বের করছেন স্বর্ণ তুল্য প্রতিভাগুলো। পাশে চলছিলো ক্রিকেটার বাছাই ক্যাম্পও। হঠাৎ সেখান হতে

একজন হন্তদন্ত হয়ে ছুটে আসলো ফুটবলের আঙ্গিনায়। ফুটবলে বিচারকার্যে নিয়োজিত দলটা হতে খুঁজে নিলো প্রত্যাশিত মানুষটাকে। কাছে এসে পাশ ঘেঁষে বললো – ভাই, আপনার ছেলে ক্রিকেটের ট্রায়ালে এসেছে, আপনি তা আমারে আগে বলবেন না…কথাশুনে ফুটবল কোচের উত্তর— আমি

বলব কেন? খেলা জিনিসটা তো আর সুপারিশ দিয়ে হয় না। নিজের মাঝে প্রতিভা থাকা লাগে। ওর মাঝে যদি প্রতিভা না থাকে, আর আমি যদি আপনাদের ওকে নেওয়ার অনুরোধ করি, ও আর কত দূরই বা যাবে?’ বাবার মনে হয়তো খানিকটা সন্দেহের কালো মেঘ জমে

ছিলো ছেলের প্রতিভা নিয়ে। কিন্তু তাই বলে ছেলে বসে থাকেনি। বাবাকে ভুল প্রমাণ করেছে পুরোদমে। আপন মহিমায় সন্দেহের কালো মেঘ দূর করে সূর্যের উত্তাপ প্রকাশ করেছে। ফলাফল? প্রতিভার ছাপ রেখে প্রথম ধাপের এক মাসের ট্রায়ালে নির্বাচিত! পরবর্তী ধাপে যেতে দ্রুত

পূরণ করতে হবে ফরম। কিন্তু ছেলেটা যে সঙ্গে ছবিই আনেননি! দ্রুত তার ব্যবস্থা করা হলো। অতঃপর এক মাসের ট্রায়ালে গেলেন পাশের জেলা নড়াইলে। মাশরাফী বিন মুর্ত্তজার শহরে। ফুটবলের সূত্রে মাশরাফীর বাবা আবার ছেলেটার বাবার বন্ধু। এদিকে মাশরাফী ততো দিনে জাতীয়

দলের তারকা। কাছে পেয়ে মাশরাফীর কাছেই ছেলেটার বাবা উদ্বেগ ভরা কণ্ঠে জানতে চাইলো-, ‘বাবা, আমার ছেলেটাকে দিয়ে কি ক্রিকেট হবে? মাশরাফী আশ্বস্ত করলেন, বললেন— ‘চাচা, আপনে কোনো চিন্তা কইরেন না তো। এইখান থেকে এবছর বিকেএসপিতে যদি একজনও

চান্স পায়, সেইডেই হবে আপনের ছেলে।’ কিন্তু হায়! মাশরাফী কি ভুলেও কখনো ভেবেছিলো, এই ছেলেই তার জন্য লজ্জার কারণ হবে? ঘটনাটা শুনি মাশরাফীর মুখ থেকেই। “ছেলেটা যখন ক্যাম্পে এলো, একদিন আমাকে ডেকে নিয়ে গিয়ে বাপ্পি স্যার বলেছিলো– সবাইকে তো পে’টাও,

এই ছেলেটার বল পে’টাও তো। আমি পারিনি সেদিন।” তবে মিথ্যে হয়নি মাশরাফীর ভবিষ্যৎবাণী। সত্যি হলো তার কথা। তবে খুব সহজে নয়, আরও একটা ট্রায়াল পাড়ি দিতে হবে। এবার ছয় মাসের একটা বড় ট্রায়াল। সেই ট্রায়ালও হবে রাজধানী শহর ঢাকায়। তবে সেই বাধা জয় করে ফুটবল কোচের সেই ছেলেটা ট্রায়ালে সারা দেশের ভেতর পেলো সর্বোচ্চ নম্বর! ছেলেটার মার্কশিটে কি লেখা ছিলো জানেন? নাম্বার ওয়ান, সাকিব আল হাসান!