Friday , April 16 2021

নাতির স’ঙ্গে পরাকিয়া, ঘরে ডেকে নিয়ে পুরু’ষা’ঙ্গ কে’টে দিল দাদি

ঘ’টনাসূত্রে জা’না গেছে, আলমডাঙ্গা উপজে’লার পাইকপাড়া গ্রামের সাজ্জাদ আলীর দুই স’ন্তানের জননী স্ত্রী শখের বানুকে (৩০) রেখে গত ১১ মাস আগে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছে। এই সুযোগে স্ত্রী শখের বানু প্রতিবেশি নাতি সম্প’র্কের যুবক মানিকের (২৭) সাথে প্রে’মের সম্প’র্ক গড়ে তোলে।

চুয়াডাঙ্গা জে’লার আলমডাঙ্গায় প্রে’মিক নাতির বিয়ের খবরে রাতে ঘরে ডেকে লি’ঙ্গ কে’টে দিল দাদি। ঘ’টনাটি ঘ’টেছে জে’লার আলমডাঙ্গা উপজে’লার পাইকপাড়া গ্রামে।রাতেই গু’রুতর র’ক্তা’ক্ত অব’স্থায় নাতি মানিককে (২৭) আলমডাঙ্গা শহরের শেফা ক্লিনি’কে ভর্তি করা হয়েছে। কর্তিত লি’ঙ্গ ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জা’না গেছে।

জা’না যায়, মানিক পাইকপাড়া গ্রামের আলমঙ্গীর আলীর ছেলে। দীর্ঘদিন ধ’রে নাতি মানিক ও দাদি শখের বানুর শা’রীরিক সম্প’র্ক করে বলেও জা’না যায়।এরই মধ্যে বিপত্তি। অবি’বাহিত প্রে’মিক নাতি মানিকের বিয়ে পাকা’পোক্ত হয়। সে বিয়েতে মত ছিল প্রে’মিক নাতির। এতে রা’গে-ক্ষো’ভে প’ড়ে দাদি। তিনি প্রতি’শোধের আ’গুন বুকে নিয়ে ঘুরছিলেন।

হ’ঠাৎ গত দিনগত রাতে দাদি প্রে’মিক নাতিকে তার ঘরে মোবাইলফোনে ডেকে নেন। পরে উত্তে’জিত অব’স্থায় প্রে’মিক নাতির লি’ঙ্গে লুকিয়ে রাখা ব্লে’ড দিয়ে পো’স মা’রেন। এতে গু’রুতর র’ক্তাক্ত জ’খম হন প্রে’মিক নাতি।

তার অবস্থা বেগতিক হলে নাক-লজ্জ্বা’র মাথা খেয়ে চিকি’ৎসার জন্য আলমডাঙ্গার শেফা ক্লি’নিকে ভ’র্তি করা হয়। এদিকে ক্লিনিকসূত্রে জা’না যায়, মানিকের কর্তি’ত লি’ঙ্গে মোট আ’টটি সেলা’ই দিতে হয়েছে। বর্তমানে সে ঐই ক্লিনি’কে চিকি’ৎসা’ধীন রয়েছে।

না’রীরা তৃ’প্তির জন্য পুরু’ষের কাছে যা আশা করে
না’রী হোক বা পুরু’ষ হোক সবাই শা’রীরিক মি’লনে তৃ’প্তি আশা করেন। সবাই চাইলেও সে পূরণ হয়না সবার। পুরু’ষরা সহজেই তৃ’প্তি পেলেও, ম’হিলাদের ক্ষেত্রে এই সন্তুষ্টি সহজ নয়৷ ম’হিলাদের সন্তুষ্ট ক’রতে পুরু’ষরা কম কসুর করেন না৷কিন্তু প্রশ্ন হল, তৃ’প্তিতে বলতে ম’হিলারা ঠিক কী বোঝেন? পুরু’ষদের ধারণার স’ঙ্গে মে’য়েদের ভাবনার ফারাক কোথায়, তা জানতেই স’ম্প্রতি এক সমীক্ষা হয়েছিল৷

সেখানেই জা’না গেল তৃ’প্তিতে ম’হিলারা ঠিক কী চান৷প্রায় ৬০০ জন ম’হিলার উপর সমীক্ষা চা’লানো হয়েছিল৷ তাঁদের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, তাঁরা তৃ’প্তির জন্য পুরু’ষের কাছে ঠিক কী প্রত্যাশা করেন৷ উত্তর যা পাওয়া গেল, তা জা’না পুরু’ষদের জন্য অত্যন্ত জ’রুরি৷ কেননা এই উত্তরগু’লির মধ্যেই না’রীদের সু’খী করার চাবিকাঠি লুকিয়ে রয়েছে৷

যেমন এক ম’হিলা জা’নিয়েছেন, তাঁর স’ঙ্গী নিজে’র সন্তুষ্টির পরেও স’ঙ্গ’ম থামান না৷ বরং তিনি কতক্ষণে সন্তুষ্ট হবেন তার জন্য মি’লন প্রক্রিয়া চা’লিয়ে যান৷এক ম’হিলা জবাব দিচ্ছেন, শা’রীরিক তৃ’প্তির জন্য ভালবাসা আবশ্যিক নয়৷ তবে একে অন্যের শা’রীরিক চা’হিদাকে সম্মান জা’নাতে হবে, এবং প’রস্পরের চা’হিদা অনুযায়ী সক্রিয় হতে হবে৷ তবে ভালবাসা থাকলে এই তৃ’প্তি আরও অনেক গুণ বেড়ে যায়৷

মি’লন তৃ’প্তিতে মা’নসিক সম্প’র্কের জায়গা যে গু’রুত্ব পূর্ণ তা অনেকের কথায় উঠে এসেছে৷ এক ম’হিলা জা’নিয়েছেন, স’ঙ্গ’মে তিনি শা’রীরিকভাবে শিহরিত হতে থাকেন ঠিকই, তবে পাশাপাশি মা’নসিক পরিতৃ’প্তি প্রয়োজন৷ আর তা আসে স’ঙ্গীর স’ঙ্গে মা’নসিক সংযোগের ভিত্তিতেই৷